জাতীয় সংসদে অর্থ বিল পাস

বিদেশে পাচার হওয়া ফেরত আনলে বৈধ করার সুযোগ রেখে জাতীয় সংসদে স্থিরিকৃত আকারে আগামী ২০২২-২০২৩ অর্থবছরের জন্য অর্থ বিল পাস হয়েছে। বুধবার (২৯ জুন) স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদ অধিবেশনে বিলটি পাসের প্রস্তাব করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

পাসকৃত অর্থ বিলে কেউ বিদেশে টাকা প্রেরণ করে থাকলে সেই টাকা দেশে আনার সুযোগ রাখা হয়েছে। সেক্ষেত্রে কেউ টাকা দেশে এনে বিনিয়োগ করার চিন্তা করলে তাকে ৭ শতাংশ ট্যাক্স দিতে হবে। এর মধ্য দিয়ে পাচারকৃত অর্থ বৈধ করার সুযোগ সৃষ্টি হলো। বিলে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বেশ কয়েকটি ধারা গ্রহণ করেন।

অর্থ বিলে পাচারকৃত অর্থ ফেরৎ আনার বিরোধীতা করে বক্তব্য দেন বিরোধী দলের সদস্যরা। তারা অর্থ বিলের বেশ কয়েকটি ধারারও বিরোধীতা করে বলেন, বাজেট ঋণ নির্ভর হয়ে পড়েছে, দেশ বিদেশী ঋণের বোঝা চেপে বসেছে বলেও মন্তব্য করেন।

যদিও সরকারের আর্থিক প্রস্তাবাবলি কার্যকরকরণ এবং কতিপয় আইন সংশোধনকল্পে এই বিল আনা হয়। বিলে কয়েকটি ধারায় সংশোধন আনা হয়। কয়েকটি সংশোধনীসহ স্থিরিকৃত আকারে অর্থবিল পাস হয়। অর্থবিল পাসের পর সংসদের অধিবেশন মুলতবি ঘোষণা করা হয়। বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) জাতীয় সংসদে ২০২২-২০২৩ অর্থবছরের বাজেট পাস হবে। আগামী ১ জুলাই থেকে নতুন অর্থবছর কার্যকর।

The post জাতীয় সংসদে অর্থ বিল পাস appeared first on Bhorer Kagoj.

0 Comments

There are no comments yet

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × 2 =

Back to top